আরকে রায়হান https://www.rkraihan.com/2021/11/house-design.html

গ্রামের সুন্দর টিনশেড বাড়ির ডিজাইন ছবি, নকশা ও খরচ



বন্ধুরা আজকে আমরা জানব একতলা টিনশেড বাড়ির ডিজাইন সম্পর্কে। আমরা অনেকে আছি যারা গ্রামের বাড়ির ডিজাইন নকশা ও খরচ সম্পর্কে জানিনা। গ্রামের সুন্দর টিনশেড বাড়ির ডিজাইন ছবি, নকশা ও খরচ কিভাবে করবেন তাই নিয়ে আজকের পোস্ট। home design bangladesh

 
আধা পাকা বাড়ির ডিজাইন, একতলা টিনশেড বাড়ির ডিজাইন, গ্রামের বাড়ির ডিজাইন নকশা, গ্রামের, বাড়ির ডিজাইন ছবি, সুন্দর টিন সেড বাড়ির ডিজাইন, টিনের বাড়ির ডিজাইন ছবি, টিনশেড বাড়ির ডিজাইন, টিন সেড বাড়ির ডিজাইন ও খরচ, গ্রামের টিনের বাড়ির ডিজাইন

গ্রামের সুন্দর টিনশেড বাড়ির ডিজাইন ছবি, নকশা ও খরচ

আপনি যদি টিনশেড বাড়ি করতে চান তাহলে আপনাদের প্রথমে কিছু জিনিস আগে থেকে নির্ধারণ করতে হবে । যেমন আপনি কত টুকু জমিতে সুন্দর টিন সেড বাড়ির ডিজাইন করতে চাচ্ছেন আবার কতটি বেড রুম করতে চাচ্ছেন সেসব বিষয় মাথায় রাক্তহে হবে।

গ্রামের টিনশেড বাড়ির ডিজাইন নকশা ছবি

আধা পাকা বাড়ির ডিজাইন, একতলা টিনশেড বাড়ির ডিজাইন, গ্রামের বাড়ির ডিজাইন নকশা, গ্রামের, বাড়ির ডিজাইন ছবি, সুন্দর টিন সেড বাড়ির ডিজাইন, টিনের বাড়ির ডিজাইন ছবি, টিনশেড বাড়ির ডিজাইন, টিন সেড বাড়ির ডিজাইন ও খরচ, গ্রামের টিনের বাড়ির ডিজাইন

আধা পাকা বাড়ির ডিজাইন, একতলা টিনশেড বাড়ির ডিজাইন, গ্রামের বাড়ির ডিজাইন নকশা, গ্রামের, বাড়ির ডিজাইন ছবি, সুন্দর টিন সেড বাড়ির ডিজাইন, টিনের বাড়ির ডিজাইন ছবি, টিনশেড বাড়ির ডিজাইন, টিন সেড বাড়ির ডিজাইন ও খরচ, গ্রামের টিনের বাড়ির ডিজাইন

আধা পাকা বাড়ির ডিজাইন, একতলা টিনশেড বাড়ির ডিজাইন, গ্রামের বাড়ির ডিজাইন নকশা, গ্রামের, বাড়ির ডিজাইন ছবি, সুন্দর টিন সেড বাড়ির ডিজাইন, টিনের বাড়ির ডিজাইন ছবি, টিনশেড বাড়ির ডিজাইন, টিন সেড বাড়ির ডিজাইন ও খরচ, গ্রামের টিনের বাড়ির ডিজাইন

টিন সেড বাড়ির ডিজাইনে যা যা থাকবেঃ

  • বেড রুম : ৩টি (বেড রুমের আয়তন যথাক্রমে ১৬৭ , ২২৫, ও ১৫৬ স্কয়ার ফুট )
  • টয়লেট: ২টি (৩৯ ও ৪২ স্কয়ার ফুট)
  • কিচেন + ডাইনিং রুম: ১টি (১৫৮ স্কয়ার ফুট )
  • লিভিং রুম: ১ টি (২৬৫ স্কয়ার ফুট )
  • কার পার্কিংঃ ১ টি (৩৬২ স্কয়ার ফুট )


টিন সেড বাড়ির ডিজাইন ও খরচ

এই বাড়িটি নির্মাণ করতে আনুমানিক খরচ হবে = ২৪ থেকে ২৫ লক্ষ টাকা। টিনের বাড়িটি যা যা লাগবে সেসব জিনিসের দাম নিম্নে তুলে ধরা হলোঃ

ইটের সংখ্য = ১৮,৯০০ টি।

প্রতিটি ইটের দাম ১৫ টাকা করে হলে।

মোট দাম হয় = ২৮৩,৫০০/- টাকা।

 

রড লাগবে = ২৩০০ কেজি।

প্রতি কেজি রডের দাম ৮৫ টাকা করে হলে।

মোট দাম হয় = ১৯৫,৫০০/- টাকা।

 

সিমেন্ট লাগবে = ৩৯৬ ব্যাগ।

প্রতি ব্যাগ সিমেন্টের দাম ৫০০ টাকা হলে।

মোট দাম হয় = ১৯৮,০০০/- টাকা।

 

ঢালায়ের বালি লাগবে = ৪৭৫ সি,এফ,টি।

প্রতি সি,এফ,টি বালির দাম = ৭০ টাকা হলে।

মোট দাম হয় = ৩৩,২৫০/- টাকা।

 

সাদা (গাথুনি ও প্লাস্টার) বালি লাগবে = ৯২৫ সি,এফ,টি।

প্রতি সি,এফ,টি বালির দাম = ৫০ টাকা হলে।

মোট দাম হয় = ৪৬,২৫০/- টাকা।

 

ইটের খোয়া লাগবে = ৯৪০ সি,এফ,টি।

প্রতি সি,এফ,টি খোয়ার দাম = ১৩০ টাকা হলে।

মোট দাম হয় = ১২২,২০০/- টাকা।

 

চালের জন্য ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রোফাইল শীড লাগবে = ১৬৮০ স্কয়ারফুট

প্রতি স্কয়ারফুট মালামাল সহ কাজের মুল্য =৩৫০ টাকা হলে।

মোট দাম হয় = ৫৮৮,০০০/- টাকা।

 

জিপসাম বোর্ডের ফল সিলিং লাগবে = ১৬২৫ স্কয়ারফুট

প্রতি স্কয়ারফুট মালামাল সহ কাজের মুল্য =৭৫ টাকা হলে।

মোট দাম হয় =১২১,৮৭৫/- টাকা।

 

রড মিস্ত্রি ও রাজ মিস্ত্রির গড় খরচ প্রতি স্কয়ার ফিট = ২৫০/ টাকা হলে।

১৬২৫ স্কয়ার ফিটের খরচ হবে = ৪০৬,২৫০/- টাকা।


আনুমানিক অন্যান্য খরচ:

  • দরজার জন্য খরচ হবে = ৫৭,০০০/- টাকা।
  • জানালার জন্য খরচ হবে = ১৪৪,০০০/- টাকা।
  • প্লাম্বিং এবং সেনেটারি কাজের জন্য খরচ হবে = ৮০,০০০/- টাকা।
  • ইলেকট্রিক্যাল কাজের জন্য খরচ হবে = ৫৬,০০০/- টাকা।
  • বাড়ির রঙের জন্য খরচ হবে = ৬০,০০০/- টাকা।
  • বাড়িটি নির্মাণের জন্য মোট খরচ হবে = ২৪,৪০,৮২৫/- টাকা।
  • প্রতি বর্গফুটে খরচ হবে = ১৫০২/- টাকা।



বাড়ির ডিজাইন সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থাকলে নিচের কমেন্ট বক্স এ প্রশ্ন করুন।


রাজ মিস্ত্রির মজুরি ও বাড়ি নির্মাণ কাজের প্রযোজনিয় ম্যাটেরিয়ালের বাজার মুল্য স্থান কাল ভেদে কমবেশি হতে পারে। এটা নির্ভর করবে বাজারে চাহিদা উপর। ছাদের মাপের উপর প্রতি ফ্লোরে শতকরা ১০ থেকে ২০% হারে দর বৃদ্ধি হতে পারে অথবা ১০ থেকে ২০% হারে দর কমতেও পারে। এছাড়া রাজ ও রডের মিস্ত্রিয় এবং লেবার দের কাজের রেট আলোচনার মাধ্যমে সঠিক বাজার মূল্যে ঠিক করলে ভাল হয়।

বিঃদ্রঃ মালিক যদি নিজে মালামাল কিনে কাজ করাতে পারেন তাহলে উক্ত হিসাবকৃত টাকা দিয়ে কাজ শেষ করতে পারবেন। এবং এখান থেকে কিছু টাকা বাঁচাতে ও পারবেন। তবে কাউকে বাড়িটি বানানোর জন্য কন্টাক্ট দিলে উক্ত হিসাবকৃত টাকা লাগতে পারে অথবা এর চেয়ে কিছু টাকা বেশি লাগতে পারে।


সতর্ক বাণী

একজন ইঞ্জিনিয়ার এর কাছে ডিজাইন করতে গেলে অনেক খরচ। তাই মাথা খাটিয়ে ইন্টারনেট থেকে একটা ডিজাইন নামিয়ে নিলেই ইঞ্জিনিয়ার এর খরচটা বেচে যাবে। এই চিন্তা অনেক ভয়ংকর কারন একটা ডিজাইন অনেক গুলো ভ্যারিয়েবল ফ্যাক্টর এর উপর নির্ভরশীল।

যেমন :

১। মাটির ধরন।

২। ওই এলাকার ভূমিকম্প প্রবণতা।

৩। বাতাসের ধরন।

৪। প্লটের দিক।

৫। সূর্যালোক এর ব্যাবস্থা।

৬। প্রয়োজনীয় মালামালের পর্যাপ্ততা ইত্যাদি

সেই সঙ্গে অত্যন্ত সংবেদনশীল এবং জটিল সব সূত্র এবং সফটওয়্যার ব্যাবহার করে সেই ডিজাইন এর যথার্থতা নির্ণয় করা হয়। সুতরাং খরচ বাঁচাতে জীবন ঝুঁকিতে ফেলবেন না। ভালো মানের ইট রড সিমেন্ট এর পাশাপাশি ভালো মানের একটা ডিজাইন নিশ্চিৎ করবে আপনার ও আপনার পরিবারের সুরক্ষা।

আধা পাকা বাড়ির ডিজাইন, একতলা টিনশেড বাড়ির ডিজাইন, গ্রামের বাড়ির ডিজাইন নকশা, গ্রামের, বাড়ির ডিজাইন ছবি, সুন্দর টিন সেড বাড়ির ডিজাইন, টিনের বাড়ির ডিজাইন ছবি, টিনশেড বাড়ির ডিজাইন, টিন সেড বাড়ির ডিজাইন ও খরচ, গ্রামের টিনের বাড়ির ডিজাইন

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন:

0 Comments

Please read our Comment Policy before commenting. ??

Please do not enter any spam link in the comment box.

আরকে রায়হান নোটিফিকেশন