business loans, commercial loan, auto insurance quotes, motorcycle lawyer

খুদে গল্প বাবার স্বপ্ন

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা আজকে বিষয় হলো খুদে গল্প বাবার স্বপ্ন জেনে নিবো। তোমরা যদি খুদে গল্প বাবার স্বপ্ন টি ভালো ভাবে নিজের মনের মধ্যে গুছিয়ে নিতে চাও তাহলে অবশ্যই তোমাকে মনযোগ সহকারে পড়তে হবে। চলো শিক্ষার্থী বন্ধুরা আমরা জেনে নেই আজকের খুদে গল্প বাবার স্বপ্ন  টি।

খুদে গল্প বাবার স্বপ্ন
খুদে গল্প বাবার স্বপ্ন

খুদে গল্প বাবার স্বপ্ন

পিতার আকস্মিক মৃত্যুর পর সংসারের হাল ধরতে গিয়ে লেখাপড়া ছেড়ে চাকরি নিয়েছে রাজু। ছোটো ভাই মিঠু ও বোন মিনার মধ্যেই সে দেখতে পায় তার স্বপ্ন পূরণের প্রেরণা। মাস দুয়েক আগে এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় রাজুর বাবা মারা যান। বাবার মৃত্যুর সাথে সাথে অবসান হয় রাজুর জীবনের সকল স্বপ্নের। হৃদয়ের স্বপ্নবৃক্ষ থেকে সকল পাতা ঝরে পড়ে আকস্মিক ঝড়ে। ধীরে ধীরে অন্ধকার হয়ে আসে রাজুর চারপাশ। এসএসসিতে জিপিএ-৫ পাওয়ার পর রাজুর বাবা যেন পৃথিবী হাতে পেয়েছিলেন। রাজ্যের আনন্দ ভর করেছিল তার সমস্ত সত্তার ওপর। মানুষের কাছে বলে বেড়াতেন, 'আমার রাজু ডাক্তার হবে। গরিব-দুঃখী মানুষের চিকিৎসা করবে।' এক বুক আশা নিয়ে তিনি রাজুকে ভর্তি করিয়েছিলেন ঢাকা কলেজে। অভাবের সংসার, তবু প্রতি মাসে তিন হাজার টাকা পাঠাতেন ছেলের জন্য। কিন্তু চার মাসের মাথায়ই তিনি পৃথিবী ছাড়লেন। ছোটো দুই ভাই-বোন ও মায়ের কথা ভেবে রাজু কূল-কিনারা হারিয়ে ফেলে। একমাত্র উপার্জনক্ষম মানুষটির মৃত্যুর ফলে পুরো পরিবার যেন নিঃস্ব হয়ে যায়। কোনো উপায় না দেখে রাজু চলে যায় গাজীপুরে। চাকরি নেয় একটি পোশাক কারখানায়। নির্দিষ্ট ডিউটির পরে ৬ ঘণ্টা ওভারটাইম। তারপর বাসায় ফিরে সামান্য বিশ্রাম। ভোরবেলায় আবার কারখানায় । প্রতি মাসে চার হাজার টাকা সে মায়ের কাছে পাঠায়। এই দিয়ে কোনো রকমে সংসার চলে। ছোটো ভাই মিঠু পঞ্চম শ্রেণিতে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়ে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছে। বোন মিনা পিইসি 'দেবে এবারই। দুজনই পড়ালেখায় বেশ মনোযোগী ও মেধাবী। মিঠু মাঝে মাঝে এটা সেটা করে সামান্য রোজগারের চেষ্টা করে। কিন্তু রাজুর আপত্তির ফলে সে তা বন্ধ করে। কোনোভাবেই রাজু তার ছোটো ভাই-বোনকে বাবার অভাব বুঝতে দেয়নি। ওদের সকল প্রয়োজন মেটানোর জন্য রাজু দিন-রাত খেটে যায়। রাজু ভাবে, সে যা পারেনি, ওর ছোটো ভাইবোন যেন তা পারে। নিজের ডাক্তার হওয়ার স্বপ্নকে কবর দিয়ে ভাই-বোনের ডাক্তার হবার স্বপ্নের বীজ বোনে সে। ছোটো ভাই-বোনদের মধ্যেই সে তার বাবার স্বপ্ন দেখতে পায়। ওদের দ্বারাই সে পূরণ করতে চায় বাবার লালিত স্বপ্ন। এদিকে রাজুর মা প্রায়ই ওর পরীক্ষার খবর জানতে চায়। রাজু এটা সেটা বলে তাকে বোঝায়। কোনোভাবেই কাউকে কিছু বুঝতে না দিয়ে ভাই-বোনের স্বপ্ন পূরণের জন্য দিনরাত খেটে যায় সে।

আর্টিকেলের শেষকথাঃ খুদে গল্প বাবার স্বপ্ন

আমরা এতক্ষন জেনে নিলাম খুদে গল্প বাবার স্বপ্ন  টি। যদি তোমাদের আজকের এই খুদে গল্প বাবার স্বপ্ন  টি ভালো লাগে তাহলে ফেসবুক বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করে দিতে পারো। আর এই রকম নিত্য নতুন পোস্ট পেতে আমাদের আরকে রায়হান ওয়েবসাইটের সাথে থাকো।

Next Post Previous Post