business loans, commercial loan, auto insurance quotes, motorcycle lawyer

Rural Development in Bangladesh Essay

Assalamu Alaikum Dear Students. Today's Topic is Rural Development in Bangladesh Essay. If you want to get Rural Development in Bangladesh Essay Well in Your Mind Then You Must Read Carefully. Let's know Today's Topic Rural Development in Bangladesh Essay.

Rural Development in Bangladesh Essay
Rural Development in Bangladesh Essay

Rural Development in Bangladesh Essay

Rural development means development of village. Bangladesh Is a land of villages. More than 80 percent of her people live in villages. So the Importance of villages in our body politic is great. The development of the entire country  the villages in a flourishing condition. 

In our country rural development has various aspects. The most important of them are agriculture. education. communication, sanitary and health, cottage industries. fishery. co-operative societies community life etc. 

A good communication is essential for the development of the villages. With this end in view our government has taken some practical measures. Many new roads have been constructed and many old roads and culverts have been repaired. There are also some pucca roads. Nowadays we see that buses, auto rickshaws, trucks. rickshaws etc move on the pucca roads in the rural areas. Today farmers are sending their products to tOwns and cities. 

Education is the backbone of a nation. Without education a nation can not prosper. It is education which illumines the soul, broadens the outlooks on life and dispels the darkness of ignorance. Bangladesh is a poor country. About 85% percent of her population live in village. They do not know how to read and write. We can not reach the peak of prosperity and progress until and unless we can remove the curse of illiteracy from the lot of our people. Our government is determined to free the nation from the curse of illiteracy within a very short time. 

Bangladesh is an agricultural country. Agriculture is the life blood of her economy. Again about eighty percent of our people are engaged in agriculture who live in villages. Even in this modem scientific age our agriculture is very backward. But at present it is a very happy news that our government has taken active steps and necessary measures for the progress of agriculture, such as supplying the farmers with modern scientific tools for cultivation, good seeds, fertilizer at a cheaper rate, agricultural loans on easy terms and many other things. Irrigation system has been improved, As most of the villagers are illiterate, they have no knowledge of health and sanitation. Most of the villagers suffer from various diseases. But this miserable condition is changing slowly. Many hospitals, health centres, clinics and charitable dispensaries have been set up in rural areas to ensure health facilities to the poor rural people.

Pure drinking water was very scarce in the past. People used to drink water from ponds. Asa rmesourlet they suffered from many water born diseases. Now-a-days every village has at least one or  tube wells. 

Though eighty percent of our villagers are engaged in agriculture, a large number of them remain idle for the greater part of the year. They can be employed if the cottage industries are revived and developed. They can earn a decent living from them. The cottage industries can provide employment to a large number of people and in this way unemployment problem can be solved to some extent. 

By raising more Poultry and cultivating fish more, we can develop our villages. Our government has paid much attention to these things. The poor villagers are given loan on easy terms. Many unused marshy lands have been brought under fish cultivation 

Through the development of the villages our country will reach the peak of progress and prosperity. Let us all come forward and work with concerted efforts to develop our villages. 

অনুবাদঃ গ্রামীণ উন্নয়ন মানে গ্রামের উন্নয়ন। বাংলাদেশ গ্রামের দেশ। তার 80 শতাংশেরও বেশি মানুষ গ্রামে বাস করে। তাই আমাদের রাজনীতিতে গ্রামের গুরুত্ব অনেক। সারাদেশের উন্নয়নে গ্রামগুলো উন্নতির দিকে।

আমাদের দেশে গ্রামীণ উন্নয়নের বিভিন্ন দিক রয়েছে। তার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো কৃষি। শিক্ষা যোগাযোগ, স্যানিটারি এবং স্বাস্থ্য, কুটির শিল্প। মৎস্য সমবায় সমিতি সম্প্রদায় জীবন ইত্যাদি

গ্রামের উন্নয়নের জন্য একটি ভালো যোগাযোগ অপরিহার্য। এ লক্ষ্যে আমাদের সরকার কিছু বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ নিয়েছে। অনেক নতুন রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে এবং অনেক পুরাতন রাস্তা ও কালভার্ট মেরামত করা হয়েছে। কিছু পাকা রাস্তাও আছে। আজকাল আমরা দেখি বাস, অটোরিকশা, ট্রাক। রিকশা ইত্যাদি গ্রামাঞ্চলের পাকা রাস্তায় চলাচল করে। আজ কৃষকরা তাদের পণ্য শহর ও শহরে পাঠাচ্ছেন।

শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড। শিক্ষা ছাড়া জাতি উন্নতি করতে পারে না। এটি শিক্ষা যা আত্মাকে আলোকিত করে, জীবনের দৃষ্টিভঙ্গি প্রশস্ত করে এবং অজ্ঞতার অন্ধকার দূর করে। বাংলাদেশ একটি দরিদ্র দেশ। তার জনসংখ্যার প্রায় 85% শতাংশ গ্রামে বাস করে। তারা পড়তে ও লিখতে জানে না। যতক্ষণ না আমরা আমাদের জনগণের কাছ থেকে নিরক্ষরতার অভিশাপ দূর করতে না পারি ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা সমৃদ্ধি ও উন্নতির শিখরে পৌঁছাতে পারব না। আমাদের সরকার খুব অল্প সময়ের মধ্যে জাতিকে নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে বদ্ধপরিকর।

বাংলাদেশ একটি কৃষিপ্রধান দেশ। কৃষি তার অর্থনীতির প্রাণের রক্ত। আবার আমাদের প্রায় আশি শতাংশ মানুষ কৃষিকাজে নিয়োজিত যারা গ্রামে বাস করে। এই আধুনিক বৈজ্ঞানিক যুগেও আমাদের কৃষি অনেক পশ্চাৎপদ। তবে বর্তমানে এটি একটি অত্যন্ত আনন্দের সংবাদ যে আমাদের সরকার কৃষির অগ্রগতির জন্য সক্রিয় পদক্ষেপ এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে, যেমন কৃষকদের চাষের জন্য আধুনিক বৈজ্ঞানিক সরঞ্জাম সরবরাহ, ভাল বীজ, সুলভ মূল্যে সার, সহজে কৃষি ঋণ। শর্তাবলী এবং অন্যান্য অনেক কিছু। সেচ ব্যবস্থা উন্নত করা হয়েছে, গ্রামের অধিকাংশ মানুষ নিরক্ষর হওয়ায় তাদের স্বাস্থ্য ও স্যানিটেশন সম্পর্কে কোনো জ্ঞান নেই। গ্রামের অধিকাংশ মানুষ নানা রোগে ভুগছে। কিন্তু এই করুণ অবস্থা ধীরে ধীরে বদলে যাচ্ছে। দরিদ্র গ্রামীণ জনগণের স্বাস্থ্য সুবিধা নিশ্চিত করতে গ্রামাঞ্চলে অনেক হাসপাতাল, স্বাস্থ্যকেন্দ্র, ক্লিনিক এবং দাতব্য চিকিৎসালয় স্থাপন করা হয়েছে।

অতীতে বিশুদ্ধ পানীয় জলের খুব অভাব ছিল। মানুষ পুকুরের পানি পান করত। আশা রমেসোর্লেট তারা অনেক জলবাহিত রোগে ভুগছিল। এখন প্রতিদিন প্রতিটি গ্রামে অন্তত একটি বা নলকূপ আছে।

যদিও আমাদের গ্রামের আশি শতাংশ মানুষ কৃষিকাজে নিয়োজিত, তবুও তাদের একটি বড় সংখ্যক বছরের বেশির ভাগ সময় অলস থাকে। কুটির শিল্প পুনরুজ্জীবিত ও বিকশিত হলে তাদের কর্মসংস্থান করা যাবে। তারা তাদের কাছ থেকে একটি উপযুক্ত জীবিকা উপার্জন করতে পারেন। কুটির শিল্প বিপুল সংখ্যক মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারে এবং এভাবে বেকার সমস্যা কিছুটা হলেও সমাধান করা যেতে পারে।

বেশি বেশি মুরগি পালন ও মাছ চাষ করে আমরা আমাদের গ্রামের উন্নয়ন করতে পারি। আমাদের সরকার এসব বিষয়ে অনেক মনোযোগ দিয়েছে। দরিদ্র গ্রামবাসীদের সহজ শর্তে ঋণ দেওয়া হয়। অনেক অব্যবহৃত জলাভূমি মাছ চাষের আওতায় আনা হয়েছে

গ্রামের উন্নয়নের মাধ্যমে আমাদের দেশ উন্নতি ও সমৃদ্ধির শিখরে পৌঁছাবে। আসুন আমরা সবাই এগিয়ে আসি এবং আমাদের গ্রামের উন্নয়নে সমন্বিত প্রচেষ্টা নিয়ে কাজ করি।

The End Of The Article: Rural Development in Bangladesh Essay

We Have Learned So Far Rural Development in Bangladesh Essay. If You Like Today's Rural Development in Bangladesh Essay, You Can Share it With Your Facebook Friends. And Stay With Our RK Raihan Website To Get Daily New Posts Like This.

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url