business loans, commercial loan, auto insurance quotes, motorcycle lawyer

ফাইভার নতুন সেলারদের মনে একটাই প্রশ্ন কিভাবে প্রথম কাজ পাওয়া যায়

 


ফাইভার নতুন সেলারদের মনে একটাই প্রশ্ন কিভাবে প্রথম কাজ পাওয়া যায়

অনেকেই অল্প কিছু দক্ষতা অর্জন করেই ফাইভার থেকে হাজার হাজার ডলার ইনকাম করে থাকে।

 নতুন সেলারদের মনে একটাই প্রশ্ন কিভাবে প্রথম কাজ পাওয়া যায়। বর্তমানে ফাইভার যেমন জনপ্রিয়তা তেমনি কাজ কাজ পাওয়াও অনেকটা কঠিন হয়ে দাড়িয়েছে। ফাইভারে বায়ারের চেয়ে সেলাররাই অনেক বেশি। তবুও ফাইভারে হাজার ডলার ইনকাম করা সম্ভব যদি আপনার সামান্য দক্ষতা থাকে।

আজকে আপনাদের সামনে কিছু টিপস শেয়ার করব সেগুলো ফলো করলে আপনারা খুব সহজেই কাজ পাবেন ইনশাআল্লাহ।

১. ফাইভার প্রোফাইল আকর্ষনীয় করুন‌‌_

 আপনি যদি ভবিষ্যতের চিন্তা করে ফাইভারে আসেন তাহলে প্রোফাইল আকর্ষনীয় করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বায়াররা আপনাকে কাজ দেওয়ার আগে অবশ্যই আপনার প্রোফাইল দেখবে। যদি প্রোফাইল দেখতে সুন্দর সাজানো গোছানো হয় তাহলে তো আপনাকেই আগে চয়েচ করবে। প্রোফাইল এমন ভাবে সাজাবেন যেনো অন্যদের তুলনায় আকর্ষনীয় হয়। প্রোফাইলে আপনার নিজের এমন ফটো দিবেন যেনো দেখে মনে হয় আপনি হাসিখুশি থাকেন।




২. গিগের টাইটেল : গিগের টাইটেল হতে হবে কিওয়ার্ড ভিওিক। গিগে টাইটেল দেওয়ার আগে অবশ্যই এমন কিওয়ার্ড বাছাই করতে হবে যেটাতে সার্ভিস কম বাট কাজ পাওয়া যায় এমন কিওয়ার্ড।  গিগের টাইটেল অনেকে এভাবে দেয় I will video optimize of your youtube video.

 এভাবে অগোছালো টাইটেল ব্যবহার করা যাবে না। টাইটেলে যেনো আপনার ক্যাটাগরির সার্ভিসের কিওয়ার্ড এবং সাজানো হয়। যেমন আপনি ইউটিউব ভিডিও এস ই ও নিয়ে কাজ করবেন তাহলে আপনার টাইটেল এমন হবে.. I will optimize youtube video seo for top ranking. এখানে আপনার কিওয়ার্ড হচ্ছে  Youtube Video Seo. 




৩. সুন্দর গিগ ডিসক্রিপশন লিখুন.... যে গিগে আপনাকে বায়ার অর্ডার করবে সেই গিগটি বায়ার অবশ্যই দেখবে। তাই গিগ ডিসক্রিপশন এমন ভাবে লিখবেন যেনো পড়ে বায়ার সবকিছু বুঝে যায় যে আপনি কি কি সার্ভিস দিচ্ছেন। যেমন ডেলিভারির সময় এবং আপনার কাজের ধরন।নতুন অবস্থায় আপনি গিগ প্রাইজ অন্যদের তুলনায় খুবই কম দেওয়ার চেষ্টা করবেন।

গিগ ইমেজ এমন আকর্ষনীয় দিবেন যেন গিগ ইমেজ দেখেই বায়ার আপনার গিগ ডিসক্রিপশ এব; গিগ প্রাইজ দেখতে ভিতরে আসে। গিগে ইমেজের চেয়ে গিগে ভিডিও দিলে সবচেয়ে ভালো হয়। গিগের ভিডিওতে সবকিছু বিস্তারিত তুলে ধরবেন।




৪. গিগ মার্কেটিং: ভালো ভাবে প্রোফাইল আর গিগ দিলেই হবে না। গিগ মার্কেটিং করলে দ্রুত কাজ পাওয়া যায়।  যেখানে সেখানে গিগ শেয়ার না করে এমন কোথাও গিগ শেয়ার করুন যাতে গুগলে গিগ সার্চ দিলে সেটি সার্চ লিষ্টে আসে।

আশা করছি ফাইভারে প্রথম কাজ আসবে যদি এই সব টিপস ফলো করেন। যদি আপনাদের আরও কিছু জানার থাকে তাহলে কমেন্ট করেন ইনশাআল্লাহ দেওয়ার চেস্টা করব।

Next Post
No Comment
Add Comment
comment url