business loans, commercial loan, auto insurance quotes, motorcycle lawyer

The Victory Day of Bangladesh Composition

Assalamu Alaikum Dear Students. Today's Topic is The Victory Day of Bangladesh Composition. If you want to get The Victory Day of Bangladesh Composition Well in Your Mind Then You Must Read Carefully. Let's know Today's Topic bangladesh victory day essay in bengali.

The Victory Day of Bangladesh Composition
The Victory Day of Bangladesh Composition

The Victory Day of Bangladesh Composition

December 16 is our victory day. On this day, we achieved our ultimate victory over Pakistani occupation forces and achieved our independence. On this day, a new, sovereign and independent country named Bangladesh with its own identity, own flag and own status came into being. Bangladesh stood upright among the nations of the world after a ninth-month long bloody struggle and sacrifices of millions of people. So this day is a red letter day in our national history. 

Long-standing exploitation, injustice and deprivation from due political, economic and administrative rights and privileges were the root causes of discontentment and resentment of the Bangladeshis against the ruling West Pakistani leaders. Matters grew worse when in the general election of 1970. the Awami League came out victorious defeating the ruling Muslim League, and achieved absolute majority in the parliament. But the then authorities of West Pakistan were dilly-dallying to hand over power to the elected East-Pakistan leaders. They were plotting a blue-print to 

massacre the Bengalis. On the night of March 25, the Pakistani forces launched an atrocious and barbarous attack on the innocent and sleeping Bengalis under the Operation Searchlight. By killing the innocent people of Bangladesh they were trying to subdue the spirit of independence of the Bengali, their voice for justice and rights. 

But the heroic sons of this soil stood against the Pak-army with valour and indomitable spirit for liberty. They fought against the Pak-army to free their beloved country. On March 26 Bangladesh declared independence and appealed to international community to recognise Bangladesh. In the mean time, people of all walks of life joined the liberation force. After a nine-month long struggle, and crossing a sea of blood, we gained our freedom on December 16, 1971. On that day. the Park-army surrendered to the Liberation anny at the race-course ground. Thus we achieved our glorious victory. 

Since then December 16 is being celebrated as our victory day. We observe the day with great excitement and jubilation, with colourful festivity and patriotic zeal. This day is a public holiday. Our national flag is kept flying on top of every private and public houses and offices, schools, colleges and universities. We offer wreaths to the victory monuments. Govt offices and buildings are decorated and illuminated on this day. Many cultural programmes and festivals are held throughout the country. People from every walk of life attend those programmes with great excitement and enthusiasm. 

Our victory day is a landmark event in our national political history. The day is the perpetual source of our inspiration and energy. The day reminds us of the heroic sacrifices of our sons for the noble cause and also inspires us to sacrifice ourselves for our beloved country. The day is a clear warning for the oppressors that people's light can never be neglected for long, and that oppressors will always be defeated.

Bangladesh is our pride. and our victory day is our greatest achievement as a nation because, through this victory we have got a country, a flag, an identity and an invaluable treasure of our own. However, though we have got political freedom, we have not yet got economic freedom. And so, wemust take the oath on victory day that we will make our country independent in all respects. Only then. our victory will be achieved in the true sense of the term. 

অনুবাদঃ ১৬ ডিসেম্বর আমাদের বিজয় দিবস। এই দিনে আমরা পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে চূড়ান্ত বিজয় অর্জন করে আমাদের স্বাধীনতা অর্জন করি। ১৯৭১ সালের এই দিনে নিজস্ব পরিচয়, নিজস্ব পতাকা ও নিজস্ব মর্যাদা নিয়ে বাংলাদেশ নামে একটি নতুন, সার্বভৌম ও স্বাধীন দেশ গড়ে ওঠে। দীর্ঘ ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী সংগ্রাম ও লাখো মানুষের আত্মত্যাগের পর বাংলাদেশ বিশ্বের বিভিন্ন জাতির মাঝে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। তাই এই দিনটি আমাদের জাতীয় ইতিহাসে লাল অক্ষরের দিন।

রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও প্রশাসনিক অধিকার ও সুযোগ-সুবিধা থেকে দীর্ঘদিনের শোষণ, অবিচার এবং বঞ্চনাই ছিল ক্ষমতাসীন পশ্চিম পাকিস্তানি নেতাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশিদের অসন্তোষ ও অসন্তোষের মূল কারণ। 1970 সালের সাধারণ নির্বাচনে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়ে যায়। আওয়ামী লীগ ক্ষমতাসীন মুসলিম লীগকে পরাজিত করে বিজয়ী হয় এবং সংসদে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে। কিন্তু পশ্চিম পাকিস্তানের তৎকালীন কর্তৃপক্ষ নির্বাচিত পূর্ব-পাকিস্তান নেতাদের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে উদাসীন ছিল। তারা একটি ব্লু-প্রিন্টের ষড়যন্ত্র করছিল

বাঙালিদের হত্যা করে। ২৫ মার্চ রাতে পাকিস্তানি বাহিনী অপারেশন সার্চলাইটের অধীনে নিরীহ ও ঘুমন্ত বাঙালিদের ওপর নৃশংস ও বর্বর হামলা চালায়। বাংলাদেশের নিরপরাধ মানুষকে হত্যা করে তারা বাঙালির স্বাধীনতার চেতনা, ন্যায় ও অধিকারের জন্য তাদের কণ্ঠস্বরকে দমন করতে চেয়েছিল।

কিন্তু এই মাটির বীর সন্তানেরা স্বাধীনতার জন্য বীরত্ব ও অদম্য চেতনা নিয়ে পাক-বাহিনীর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায়। তারা তাদের প্রিয় দেশকে স্বাধীন করতে পাক-বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছে। ২৬ মার্চ বাংলাদেশ স্বাধীনতা ঘোষণা করে এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়ার আবেদন জানায়। এরই মধ্যে সর্বস্তরের মানুষ মুক্তিবাহিনীতে যোগ দেয়। দীর্ঘ নয় মাস সংগ্রামের পর, রক্তের সাগর পাড়ি দিয়ে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর স্বাধীনতা লাভ করি। পার্ক আর্মি রেসকোর্স ময়দানে লিবারেশন অ্যানির কাছে আত্মসমর্পণ করে। এভাবে আমরা আমাদের গৌরবময় বিজয় অর্জন করেছি।

সেই থেকে ১৬ ডিসেম্বর আমাদের বিজয় দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। আমরা দিনটিকে অত্যন্ত উত্তেজনা ও উল্লাসের সাথে, রঙিন উত্সব এবং দেশাত্মবোধক উদ্যমের সাথে পালন করি। এই দিনটি সরকারি ছুটির দিন। সরকারি-বেসরকারি বাসা-বাড়ি, অফিস, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপরে আমাদের জাতীয় পতাকা উড়ছে। আমরা বিজয়ের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করি। এদিন সরকারি অফিস ও ভবনগুলো সজ্জিত ও আলোকসজ্জায় সজ্জিত করা হয়। সারা দেশে অনেক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। জীবনের প্রতিটি স্তরের মানুষ অত্যন্ত উত্তেজনা এবং উত্সাহের সাথে সেসব কর্মসূচিতে অংশ নেয়।

আমাদের বিজয় দিবস আমাদের জাতীয় রাজনৈতিক ইতিহাসে একটি যুগান্তকারী ঘটনা। দিনটি আমাদের অনুপ্রেরণা এবং শক্তির চিরন্তন উত্স। দিনটি আমাদেরকে মহৎ উদ্দেশ্যে আমাদের ছেলেদের বীরত্বপূর্ণ আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করিয়ে দেয় এবং আমাদের প্রিয় দেশের জন্য আত্মত্যাগ করতে আমাদের অনুপ্রাণিত করে। দিনটি অত্যাচারীদের জন্য একটি সুস্পষ্ট সতর্কবাণী যে, জনগণের আলো কখনোই বেশিদিন অবহেলা করা যাবে না এবং অত্যাচারীরা সর্বদা পরাজিত হবে।

বাংলাদেশ আমাদের অহংকার। এবং আমাদের বিজয় দিবসটি জাতি হিসেবে আমাদের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি কারণ এই বিজয়ের মধ্য দিয়ে আমরা পেয়েছি একটি দেশ, একটি পতাকা, একটি পরিচয় এবং আমাদের নিজস্ব একটি অমূল্য সম্পদ। তবে আমরা রাজনৈতিক স্বাধীনতা পেলেও অর্থনৈতিক মুক্তি পাইনি। আর তাই বিজয় দিবসে আমাদের শপথ নিতে হবে যে আমরা আমাদের দেশকে সর্বক্ষেত্রে স্বাধীন করব। শুধুমাত্র তখন. মেয়াদের প্রকৃত অর্থেই আমাদের বিজয় অর্জিত হবে।

The End Of The Article: bangladesh victory day essay in bengali

We Have Learned So Far bangladesh victory day essay in bengali. If You Like Today's The Victory Day of Bangladesh Composition, You Can Share it With Your Facebook Friends. And Stay With Our RK Raihan Website To Get Daily New Posts Like This.

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url