৬৪টি মাসি পিসি গল্পের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর | Masi Pisi Question Answer

৬৪টি মাসি পিসি গল্পের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর
৬৪টি মাসি পিসি গল্পের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

৬৪টি মাসি পিসি গল্পের জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর জেনে নিন

■ লেখক-পরিচিতি

প্রশ্ন-১. মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় কত তারিখে জন্মগ্রহণ করেন? 

উত্তর: মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় ১৯০৮ সালের ১৯শে মে জন্মগ্রহণ করেন।

প্রশ্ন-২. মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পিতৃপ্রদত্ত নাম কী?

উত্তর: মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পিতৃপ্রদত্ত নাম হলো প্রবোধকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় ।

প্রশ্ন-৩. মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় কত বছর বেঁচেছিলেন?

উত্তর: মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় ৪৮ বছর বেঁচেছিলেন।

প্রশ্ন-৪. মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রথম গল্পের নাম কী?

উত্তর: মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রথম গল্পের নাম 'অতসীমামী'।

মূলপাঠ

প্রশ্ন-৫. সালতি কোথায় লাগানো ছিল?

উত্তর: সালতি কংক্রিটের পুলের কাছে খালের ধারে লাগানো ছিল। .

প্রশ্ন-৬. কয়জন লোক আঁটিবাঁধা খড় ওপরে ওঠাচ্ছিল?

উত্তর: তিনজন লোক আঁটিবাঁধা খড় ওপরে ওঠাচ্ছিল ।

প্রশ্ন-৭. কার মাথায় কদমছাঁটা রুক্ষ চুল?

উত্তর: কৈলাশের মাথায় কদমছাটা রুক্ষ চুল ।

প্রশ্ন-৮. ‘বেলা আর নেই কৈলেশ'— উক্তিটি কার? 

উত্তর: ‘বেলা আর নেই কৈলেশ'— উক্তিটি মাসির।

প্রশ্ন-৯. কে আহ্লাদিকে শ্বশুরবাড়ি পাঠানোর কথা বলেছে? 

উত্তর: কৈলাশ আহ্লাদিকে শ্বশুরবাড়ি পাঠানোর কথা বলেছে। 

প্রশ্ন-১০. ‘খুনসুটি রাখো দিকি কৈলেশ তোমার'।— উক্তিটি কার?

উত্তর: ‘খুনসুটি রাখো দিকি কৈলেশ তোমার'- উক্তিটি মাসির। 

প্রশ্ন-১১. আহ্লাদির স্বামীর নাম কী?

উত্তর: আহ্লাদির স্বামীর নাম জগু ।

প্রশ্ন-১২, চায়ের দোকানে কৈলেশের সাথে কার দেখা হয়েছিল? 

উত্তর: চায়ের দোকানে কৈলাশের সাথে জগুর দেখা হয়েছিল। 

প্রশ্ন-১৩. কৈলাশের সাথে জগুর কোথায় দেখা হয়েছে? 

উত্তর: কৈলাশের সাথে জগুর চায়ের দোকানে দেখা হয়েছে। 

প্রশ্ন-১৪, কখন কৈলাশের স্বভাব বিগড়ে যায়?

উত্তর: হাতে দুটো পয়সা এলে কৈলাশের স্বভাব বিগড়ে যায় ।

প্রশ্ন-১৫. পিসির মতে, জগু বারো মাস কোথায় পড়ে থাকে? 

উত্তর: পিসির মতে, জগু বারো মাস শুঁড়িখানায় পড়ে থাকে । 

প্রশ্ন-১৬. জগুর বউয়ের নাম কী?

উত্তর: জগুর বউয়ের নাম আহ্লাদি ।

প্রশ্ন-১৭. ‘বজ্জাত হোক, খুনে হোক, জামাই তো’— উক্তিটি কার? 

উত্তর: ‘বজ্জাত হোক, খুনে হোক, জামাই তো'— উক্তিটি মাসির । 

প্রশ্ন-১৮. 'মাসি-পিসি' গল্পের বুড়ো লোকটির নাম কী? 

উত্তর: ‘মাসি-পিসি’ গল্পের বুড়ো লোকটির নাম— রহমান । 

প্রশ্ন-১৯. কে বাহকদের মাথায় খড় চাপিয়ে যায়? 

উত্তর: বুড়ো রহমান বাহকদের মাথায় খড় চাপিয়ে যায় । 

প্রশ্ন-২০. বুড়ো রহমানের মেয়ে কোথায় মারা গেছে? 

উত্তর: বুড়ো রহমানের মেয়ে শ্বশুরবাড়িতে মারা গেছে। 

প্রশ্ন-২১. কে সালতির সামনের দিকে ছিল?

উত্তর: মাসি সালতির সামনের দিকে ছিল ।

প্রশ্ন-২২. ‘মাসি-পিসি’ গল্পে শকুনেরা উড়ে এসে কোথায় বসে? 

উত্তর: ‘মাসি-পিসি' গল্পে শকুনেরা উড়ে এসে পাতাশূন্য শুকনো গাছটায় বসে ।

প্রশ্ন-২৪. আহ্লাদির বাবা কোন রোগে মারা যায়? 

উত্তর: আহ্লাদির বাবা কলেরা রোগে মারা যায়। 

প্রশ্ন-২৫. আহ্লাদির পরিবার-পরিজন কীভাবে মারা গিয়েছিল? 

উত্তর: আহ্লাদির পরিবার-পরিজন কলেরায় আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছিল। 

প্রশ্ন-২৬. কাদের সেবাযত্নে আহ্লাদি বেঁচে গিয়েছিল?

উত্তর: মাসি-পিসির সেবাযত্নে আহ্লাদি বেঁচে গিয়েছিল।

প্রশ্ন-২৭, মাসি পিসিকে কী বলে সম্বোধন করত? 

উত্তর: মাসি পিসিকে বেয়াইন বলে সম্বোধন করত। 

প্রশ্ন-২৮. কোথায় তরিতরকারি ও ফলমূলের দাম চড়া ছিল? 

উত্তর: শহরে তরিতরকারি ও ফলমূলের দাম চড়া ছিল। 

প্রশ্ন-২৯. মাসি-পিসি কীভাবে শহরে যেত?

উত্তর: মাসি-পিসি সালতি বেয়ে শহরে যেত।

প্রশ্ন-৩০. আহ্লাদির জমি-জমার অধিকাংশ কার দখলে চলে গেছে? 

উত্তর: আহ্লাদির জমি-জমার অধিকাংশ গোকুলের দখলে চলে গেছে। 

প্রশ্ন-৩১. কোন জিনিসের প্রতি জগুর প্রচণ্ড লোভ রয়েছে?

উত্তর: মুফতে যা পাওয়া যায়, এমন জিনিসের প্রতি জগুর প্রচণ্ড লোভ রয়েছে।

প্রশ্ন-৩২, কাকে খালি ঘরে রেখে মাসি-পিসির বাইরে যাওয়ার সাহস হয় না? 

উত্তর: আহ্লাদিকে খালি ঘরে রেখে মাসি-পিসির বাইরে যাওয়ার সাহস হয় না।

প্রশ্ন-৩৩, 'ছেলের মুখ দেখে পাষাণ নরম হয়'— উক্তিটি কার? 

উত্তর: 'ছেলের মুখ দেখে পাষাণ নরম হয়'- উক্তিটি পিসির। 

প্রশ্ন-৩৪. পিসির মতে, কী দেখলে পাষাণ নরম হয়? 

উত্তর: পিসির মতে, ছেলের মুখ দেখলে পাষাণ নরম হয় ।

প্রশ্ন-৩৫. কার শাশুড়ি-ননদ বাঘের মতো ছিল? বা কে বাঘের মতো ছিল?

উত্তর: মাসির শাশুড়ি-ননদ বাঘের মতো ছিল।

প্রশ্ন-৩৬. কে ঈষৎ তন্দ্রার ঘোরে শিউরে ওঠে?

উত্তর: আহ্লাদি ঈষৎ তন্দ্রার ঘোরে শিউরে ওঠে।

প্রশ্ন-৩৭. 'মাসি-পিসি' গল্পে বর্ণিত চৌকিদারের নাম কী?

উত্তর: 'মাসি-পিপি' গল্পে চৌকিদারের নাম কানাই ।

প্রশ্ন-৩৮. মাসি-পিসি কীসের উপোস করেছে?

উত্তর: মাসি-পিসি শুক্লপক্ষের একাদশীর উপোস করেছে।

প্রশ্ন-৩৯. কানাইয়ের সাথে গোকুলের কতজন পেয়াদা এসেছে? 

উত্তর: কানাইয়ের সাথে গোকুলের তিনজন পেয়াদা এসেছে।

প্রশ্ন-৪০. কার মাথায় পাতার ফাঁক দিয়ে জ্যোৎস্নার আলো পড়েছিল? 

উত্তর: বৈদ্যের মাথায় পাতার ফাঁক দিয়ে জ্যোৎস্নার আলো পড়েছিল। 

প্রশ্ন-৪১. মাসি-পিসি কী নিয়ে কানাইয়ের দিকে তেড়ে গিয়েছিল? 

উত্তর: মাসি-পিসি বঁটি ও কাটারি নিয়ে কানাইয়ের দিকে তেড়ে গিয়েছিল ।

প্রশ্ন-৪২. মাসি-পিসি কখন কর্তামশায়ের বাড়িতে যেতে চায়?

উত্তর: মাসি-পিসি সকালবেলা কর্তামশায়ের বাড়িতে যেতে চায়।

প্রশ্ন-৪৩. ‘এত রাতে মেয়েনোককে কাছারিবাড়ি ডাকতে কত্তার নজ্জা করে না কানাই?'—উক্তিটি কার?

উত্তর: ‘এত রাতে মেয়েনোককে কাছারিবাড়ি ডাকতে কত্তার নজ্জা করে না কানাই?'— উক্তিটি পিসির।

প্রশ্ন-৪৪. ‘বঁটির এক কোপে গলা ফাঁক করে দেব'— কথাটি কে বলেছিল? 

উত্তর: ‘বঁটির এক কোপে গলা ফাঁক করে দেব'— কথাটি মাসি বলেছিল । 

প্রশ্ন-৪৫. ‘কাটারির কোপে গলা কাটি দু-একটা’— উক্তিটি কার? 

উত্তর: ‘কাটারির কোপে গলা কাটি দু-একটা'— উক্তিটি পিসির । 

প্রশ্ন-৪৬. কারা সকলের নাম ধরে গলা ফাটিয়ে হাঁক দিয়েছিল? 

উত্তর: মাসি ও পিসি সকলের নাম ধরে গলা ফাটিয়ে হাঁক দিয়েছিল 

প্রশ্ন-৪৭. মাসি-পিসির চিৎকারে কে দলবল নিয়ে পালিয়ে যায়? 

উত্তর: মাসি-পিসির চিৎকারে কানাই চৌকিদার দলবল নিয়ে পালিয়ে যায়।

প্রশ্ন-৪৮. ‘সজাগ রইতে হবে রাতটা'— উক্তিটি কার? 

উত্তর: ‘সজাগ রইতে হবে রাতটা’— উক্তিটি মাসির। 

প্রশ্ন-৪৯. যুদ্ধের প্রস্তুতিস্বরূপ মাসি-পিসি কাঁথা-কম্বল কী করে রাখে? 

উত্তর: যুদ্ধের প্রস্তুতিস্বরূপ মাসি-পিসি কাঁথা-কম্বল জলে চুবিয়ে রাখে । 

প্রশ্ন-৫০. কারা যুদ্ধের আয়োজন করে তৈরি হয়েছিল? 

উত্তর: মাসি-পিসি যুদ্ধের আয়োজন করে তৈরি হয়েছিল ।

■ শব্দার্থ ও টীকা

প্রশ্ন-৫১. 'সালতি' কী?

উত্তর: ‘সালতি’ হলো শালকাঠে নির্মিত বা তালগাছের সরু ডোঙা ।

প্রশ্ন-৫২. 'লগি' কী?

উত্তর: ‘লগি’ হলো নৌকা চালানোর জন্য ব্যবহৃত বাঁশের দণ্ড। 

প্রশ্ন-৫৩. ‘সোমত্ত' শব্দের অর্থ কী?

উত্তর: ‘সোমত্ত' শব্দের অর্থ যৌবনপ্রাপ্ত ।

প্রশ্ন-৫৪. ‘পাঁশুটে’ শব্দের অর্থ কী?

উত্তর: ‘পাঁশুটে' শব্দের অর্থ— ফ্যাকাশে। 

প্রশ্ন-৫৫. 'ব্যঞ্জন' অর্থ কী?

উত্তর: ‘ব্যঞ্জন' অর্থ— রান্না করা তরকারি

প্রশ্ন-৫৬. ‘রসুই চালা' শব্দের অর্থ কী?

উত্তর: ‘রসুই চালা' শব্দের অর্থ— রান্নাঘর ।

■ পাঠ-পরিচিতি

প্রশ্ন-৫৭. 'মাসি-পিসি' গল্পের রচয়িতা কে?

উত্তর: ‘মাসি-পিসি' গল্পের রচয়িতা মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় ।

প্রশ্ন-৫৮. 'মাসি-পিসি' গল্পটি কোন পত্রিকায় প্রথম প্রকাশিত হয়? 

উত্তর: ‘মাসি-পিসি' গল্পটি প্রথম প্রকাশিত হয় কলকাতার ‘পূর্বাশা’ পত্রিকায় ।

প্রশ্ন-৫৮. ‘মাসি-পিসি' গল্পটি কোন পত্রিকায় প্রথম প্রকাশিত হয়? 

উত্তর: ‘মাসি-পিসি' গল্পটি প্রথম প্রকাশিত হয় কলকাতার ‘পূর্বাশা’ পত্রিকায় 1

প্রশ্ন-৫৯. ‘মাসি-পিসি' গল্পটি কোন গল্পগ্রন্থে সংকলিত হয়েছে? 

উত্তর: ‘মাসি-পিসি' গল্পটি ‘পরিস্থিতি' গল্পগ্রন্থে সংকলিত হয়েছে। 

প্রশ্ন-৬০. ‘মানিক রচনাবলী' কোন প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয়েছে? 

উত্তর: ‘মানিক রচনাবলী' ঐতিহ্য প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয়েছে।

প্রশ্ন-৬১. ‘মাসি-পিসি' গল্পটি কোথা থেকে পাঠ্যপুস্তকে গ্রহণ করা হয়েছে?

উত্তর: ‘মাসি-পিসি' গল্পটি মানিক রচনাবলীর পঞ্চম খণ্ড থেকে পাঠ্যপুস্তকে গ্রহণ করা হয়েছে।

প্রশ্ন-৬২. ‘মাসি-পিসি' গল্পের তাৎপর্যপূর্ণ দিক কোনটি?

উত্তর: ‘মাসি-পিসি' গল্পের তাৎপর্যপূর্ণ দিক হলো নারীর বুদ্ধিদীপ্ত ও সাহসী সংগ্রাম পরিচালনা ।

প্রশ্ন-৬৩, ‘মাসি-পিসি' গল্পের প্রশংসনীয় দিক কোনটি?

উত্তর: ‘মাসি-পিসি’ গল্পের প্রশংসনীয় দিক হলো দুই বিধবার দায়িত্বশীল ও মানবিক জীবনযুদ্ধ।

প্রশ্ন-৬৪. ‘মাসি-পিসি' গল্পের বৈচিত্র্যময় দিক কোনটি?

উত্তর: ‘মাসি-পিসি’ গল্পের বৈচিত্র্যময় দিক হলো নারীর জীবিকা নির্বাহের জন্য কঠিন পরিশ্রম ।

প্রশ্ন-৬১. ‘মাসি-পিসি' গল্পটি কোথা থেকে পাঠ্যপুস্তকে গ্রহণ করা হয়েছে?

উত্তর: ‘মাসি-পিসি' গল্পটি মানিক রচনাবলীর পঞ্চম খণ্ড থেকে পাঠ্যপুস্তকে গ্রহণ করা হয়েছে।

প্রশ্ন-৬২. ‘মাসি-পিসি' গল্পের তাৎপর্যপূর্ণ দিক কোনটি?

উত্তর: ‘মাসি-পিসি' গল্পের তাৎপর্যপূর্ণ দিক হলো নারীর বুদ্ধিদীপ্ত ও সাহসী সংগ্রাম পরিচালনা ।

প্রশ্ন-৬৩, ‘মাসি-পিসি' গল্পের প্রশংসনীয় দিক কোনটি?

উত্তর: ‘মাসি-পিসি’ গল্পের প্রশংসনীয় দিক হলো দুই বিধবার দায়িত্বশীল ও মানবিক জীবনযুদ্ধ।

প্রশ্ন-৬৪. ‘মাসি-পিসি' গল্পের বৈচিত্র্যময় দিক কোনটি?

উত্তর: ‘মাসি-পিসি’ গল্পের বৈচিত্র্যময় দিক হলো নারীর জীবিকা নির্বাহের জন্য কঠিন পরিশ্রম ।

Next Post Previous Post
3 Comments
  • Anonymous
    Anonymous 09 September

    Thanks

  • Anonymous
    Anonymous 01 March

    thank you so much 🥰🥰🥰

  • Anonymous
    Anonymous 31 May

    Thank you so much ❤️

Add Comment
comment url
আরও পড়ুনঃ
আরও পড়ুনঃ