business loans, commercial loan, auto insurance quotes, motorcycle lawyer

জেন্ডার কাকে বলে

আসসালামু আলাইকুম প্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা আজকে বিষয় হলো জেন্ডার কাকে বলে জেনে নিবো। তোমরা যদি পড়াটি ভালো ভাবে নিজের মনের মধ্যে গুছিয়ে নিতে চাও তাহলে অবশ্যই তোমাকে মনযোগ সহকারে পড়তে হবে। চলো শিক্ষার্থী বন্ধুরা আমরা জেনে নেই আজকের জেন্ডার কাকে বলে।

জেন্ডার কাকে বলে
জেন্ডার কাকে বলে

জেন্ডার কাকে বলে

  • অথবা, জেন্ডার কী?
  • অথবা, জেন্ডার বলতে কী বোঝায়?
  • অথবা, জেন্ডারের অর্থ ও সংজ্ঞা শেখ।

উত্তর : ভূমিকা : জেন্ডার সব সময়ের একটি বহুল আলোচিত ও চর্চিত প্রত্যয় বা ধারণা। বিংশ শতাব্দীর ৭০-এর দশকে নারীবাদী চিন্তাবিদদের দ্বারা 'জেন্ডার' ধারণাটি বিকশিত হয়। তবে সর্বপ্রথম মনোবিজ্ঞানীগণ জেন্ডার শব্দটি ব্যবহার করেন। উন্নত সাহিত্য ও গবেষণায় জেন্ডার প্রত্যয়টি সাম্প্রতিককালে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে।

→ জেন্ডারের অর্থ ও সংজ্ঞা : নারী ও পুরুষের সামাজিক সম্পর্ককে বুঝানোর জন্য কোন পরিভাষা এতকাল ছিল না। নারী ও পুরুষের মধ্যে পার্থক্য ‘সেক্স' (Sex) শব্দ দ্বারা চিহ্নিত করা হয়ে থাকে। কিন্তু নারী ও পুরুষের যে সম্পর্কের ভিত্তিতে সামাজিক সংগঠনগুলো গড়ে উঠেছে তাকে বুঝানোর কোন শব্দ ছিল না। 

ইদানীংকালে নারীবিষয়ক গবেষকগণ নারী-পুরুষের সামাজিক সম্পর্ককে বুঝাতে ‘জেন্ডার' শব্দটি চয়ন করেছেন। ইংরেজি 'Gender' শব্দের বাংলা পরিভাষা উদ্ভাবিত হয়নি। তাই বাংলা ভাষার গবেষকগণ ‘জেন্ডার' শব্দটি ব্যবহার করেছেন।

‘জেন্ডার' শব্দটির আভিধানিক অর্থ ‘সেক্স' বা 'লিঙ্গ'। সাধারণত ব্যাকরণে 'জেন্ডার' শব্দটি ব্যবহৃত হয় লিঙ্গ চিহ্নিত করার জন্য । যেমন : পুংলিঙ্গ, স্ত্রীলিঙ্গ, উভয় লিঙ্গ ইত্যাদি । কিন্তু জেন্ডার ও সেক্স শব্দ দুইটি একই অর্থ প্রকাশ করলেও সাম্প্রতিককালে উন্নয়ন ভাবনায় 'জেন্ডার' শব্দটি ভিন্ন ও ব্যাপকতর অর্থে ব্যবহৃত হয়। 

সেক্স বলতে বুঝায় নারী পুরুষের মধ্যে জৈবিক প্রভেদ। জীববিজ্ঞান এ প্রভেদ সৃষ্টি করে দিয়েছে। আর জেন্ডার বলতে বুঝায় নারী-পুরুষের মধ্যে সৃষ্ট প্রভেদ। মানুষ এ প্রভেদ সৃষ্টি করেছে। সুতরাং জেন্ডার শব্দের অর্থ জৈবিক দিককে নির্দেশ করে না। 

বরং নির্দেশ করে সামাজিক বা সমাজ সৃষ্ট মতাদর্শকে। অর্থাৎ সমাজে পুরুষ ও নারীর সামাজিকভাবে প্রত্যাশিত আচার আচরণ যা শারীরিক বা লিঙ্গ বৈশিষ্ট্যের উপর নির্ভরশীল নয়, তাই হলো জেন্ডার। সুতরাং সমাজ কর্তৃক বিনির্মিত নারী ও পুরুষের মধ্যকার সামাজিক সম্পর্ককে জেন্ডার বলা হয় । 

তাই দেখা যাচ্ছে জেন্ডার বলতে বোঝায় পুরুষ ও নারীর মধ্যে সম্পর্কের সামাজিক সংগঠন । সুসান বাকিংহোম হার্টফিল্ড তার 'Gender' বইতে বলেন, "It is a social construction organized around biological sex.. Individuals are learn male and female but that is what if maens to be male of female."

আলেয়া পারভীনের মতে, “জেন্ডার হলো সমাজ আরোপিত নারী ও পুরুসের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংজ্ঞা।”

ড. শেখ আমজাদ হোসেন লিখেছেন, “পরিবার, সমাজ ও সংস্কৃতি কর্তৃক সৃষ্ট, বিনির্মিত নারী ও পুরুষের মধ্যে সামাজিক সম্পর্ককে জেন্ডার নামে চিহ্নিত করা হয়।”

জোয়ান ডব্লিউ স্কট বলেন, “জেন্ডার হলো নারী-পুরুষের মধ্যে অনুভূত পার্থক্যের ভিত্তিতে গঠিত সামাজিক সম্পর্কের উপাদান।”

উপসংহার : পরিশেষে বলা যায়, জেন্ডার নারী ও পুরুষের উপর আরোপিত সামাজিক পরিচয় বহন করে। জেন্ডারের শিকড় সামাজিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রোথিত। জেন্ডার সমাজে এমন প্যাটার্ন উৎপন্ন করে যা নারী ও পুরুষের জন্য ভিন্ন ভিন্ন সুবিধাজনক ও অসুবিধাজনক অবস্থান নির্ণয় করে দেয়।

আর্টিকেলের শেষকথাঃ জেন্ডার বলতে কী বোঝায়

আমরা এতক্ষন জেনে নিলাম জেন্ডারের অর্থ ও সংজ্ঞা শেখ। যদি তোমাদের আজকের এই পড়াটিটি ভালো লাগে তাহলে ফেসবুক বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করে দিতে পারো। আর এই রকম নিত্য নতুন পোস্ট পেতে আমাদের আরকে রায়হান ওয়েবসাইটের সাথে থাকো। 

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url

Google News এ আমাদের ফলো করুন

fha loan, va loan, refi, heloc